আইওয়াশ এবং সেফটি শাওয়ার কি, বিবরণ ও দাম

সাধারণত, শিল্প  কল-কারখানা যেখানে উৎপাদন কাজের জন্য কেমিকেল বা উপাদানের ব্যবহার করা হয় সেখানে আইওয়াশ এবং সেফটি শাওয়ার (Eyewash and Safety Shower) ব্যবহার করা হয়। যদি বুঝিয়ে বলি, উৎপাদনমুখী কল-কারখানার শ্রমিকেরা দীর্ঘক্ষণ ধরে বিভিন্ন ধরণের দাহ্য পদার্থের সংস্পর্শে থাকে যা খুবই বিপদজনক হয়ে উঠতে পারে।

যেমন হঠাৎ করে সেই কেমিকেল দূর্ঘটনাবশত শরীরে এসে পরতে পারে এমনকি তা চোখেরও সংস্পর্শেও আসতে পারে যা খুবই মারাত্মক। এমতাবস্থায় সাথে সাথে পানি দ্বারা চোখ বা শরীরের সেই অংশটি কিছুক্ষণ সময় নিয়ে ধোয়া দরকার হয়ে পরে এমনকি শরীরে কোন কেমিকেল, ফ্লেম,বা রাসায়নিক দাহ্য পদার্থ পরলে তা সাথে সাথে ধুয়ে ফেলতে হয়। তাই শিল্প কল-কারখানার জন্য আই ওয়াশ এবং সেফটি শাওয়ার খুবই প্রয়োজনীয় দুটি জিনিস কেননা এটা আক্রান্ত চোখকে এবং শরীরকে স্থায়ী ক্ষতি থেকে রক্ষা করতে সহায়ক।

কোথায় আই-ওয়াশ এবং সেফটি শাওয়ার থাকা উচিত?

সেই সকল এরিয়া যেখানে কর্মচারী/ওয়ার্কাররা সরাসরি ক্ষতিকর কেমিকেলের সংস্পর্শে এবং কাছা-কাছা থাকে সেখানে এই যন্ত্রটি থাকে খুবই দরকার। যেমন-

  • গবেষণাগার
  • ব্যাটারি চারজিং এরিয়া
  • গার্মেন্টস ফ্যক্টরি
  • ডাইয়িং হাউস
  • খুব-ধুলাময় এরিয়া
  • কেমিকেল নিয়ে কাজ করা কল-কারখানা
  • উৎপাদন কার্যে আগুন ব্যবহারকারী কল-কারখানা, ইত্যাদি

ঠিক কোন জায়গাটায় আই-ওয়াশ এবং সেফটি শাওয়ার রাখা উচিত?

এই সরঞ্জামটি এমন একটি স্থানে রাখা উচিত যেন ওয়ার্কারারা খুব দ্রুত এর কাছে পৌছতে পারে। মূলত,সেইখানে এটা স্থাপন করতে হবে যেখানে থেকে ওয়ার্কাররা মাত্র ১০ সেকেন্ড সময় নেয় এটির কাছে পৌছতে। তাই যতটা কাছাকাছি সম্ভব এটা স্থাপন বা রাখা উচিত।

safety-eye-wash-unicare-lses2-css-304

দাম দেখুন

এএনএসআই (ANSI) এর মতে, একজন প্রাপ্ত বয়স্ক ব্যক্তি ১০ সেকেন্ডে ১৭ মিটার ( ৫৫ ফিট) দূরত্বে যেতে পারে। তাই তাদের কাজের স্থান থেকে মাত্র ১৭ মিটারের মধ্যে এই সরঞ্জামটি রাখা উচিত,যদি সম্ভব হয় আরো কাছাকাছি রাখতে পারলে আরো ভাল হয়।

safety-eye-wash-unicare-lses-8-css-304

# আইওয়াস এবং সেফটি শাওয়ারের দাম দেখুন

আরো কিছু পরামর্শ এই সরঞ্জামটি স্থাপনের ক্ষেত্রে

  • কাজের এরিয়ার যতটা কাছাকাছি সম্ভব এটি স্থাপনব করুণ।
  • এটি সবসময় খোলা থাকা উচিত। কোন কিছু দিয়ে ঢাকা বা মোড়ানো থাকা একদমই উচিত নয়।
  • এটি একটি খোলামেলা জায়গায় রাখা উচিত যেন সকলের নজরে পড়ে। কাজের স্থান এবং এটি রাখার মাঝখানে কোন রকম দেয়াল বা পার্টিশন থাকা উচিত নয়।
  • এই মেশিনটি কোন আলাদা ঘরে রাখা উচিত নয় যেন ওয়ার্কারদের দরজা দিয়ে এটির কাছে পৌছতে না হয়। কারণ,আক্রান্ত ব্যাক্তির যত তারাতারি সম্ভব সরঞ্জামটির কাছে পৌছানো দরকার।
  • এমন স্থানে এটি রাখা উচিত যেন সবাই সহজেই এটিকে দেখতে পারে বা দৃষ্টিগোচর হয়।
  • একই ফ্লোরে এটি রাখতে হবে যেন এটি ব্যবহার করার জন্য কাউকে সিঁড়ি/লিফট ব্যবহার করে এর কাক্সহে যেতে না হয়।
  • এমন জাইয়াগায় রাখতে হবে যেন অন্য ওয়ার্কাররা আক্রান্ত ব্যক্তিকে এটি ব্যহবার করার ক্ষেত্রে সাহায্য করতে পারে।
  • সেই জায়গায় রাখা প্রয়োজন যেখানে কোন রকম দূষণ না হয়।
  • পানি সরবরার এবং বেরিয়ে যাওয়ার সঠিক ব্যবস্থা থাকতে হবে।
  • এই সেফিটি শাওয়ার এবং আই-ওয়াশের কাছাকাছি একদমই বৈদ্যুতিক তার বা কোন রকম বৈদ্যুতিক উৎস থাকা উচিত নয়।
  • যদি এটি বাইরে স্থাপন করা হয় তবে যেন এটিকে ধুলা-ময়লা থেকে রক্ষা করা হয়।
  • এটাকে সবসময় পরিস্কার এবং ব্যবহার উপযোগি রাখা উচিত।
  • মসে অন্তত একবার এর কার্যকারিতা পরিক্ষা করে দেখা উচিত। বিকল নয়, এটি সবসময় সচল থাকা উচিত।

কত সময় ধরে আক্রান্ত স্থানকে ধোয়া উচিত?

এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় যে কতক্ষন ধরে আক্রান্ত স্থানটি পানি দ্বারা ধোয়া উচিত। যদিও এই উত্তরটা বিভিন্ন রকম হয়ে থাকে তবে কমপক্ষে ১৫ মিনিট ধরে ধোয়া উচিত।

Safety-Eye-Wash-Unicare-UPEW14

তবে এই সময় বাড়ানো যেতে পারে কি ধরণের কেমিকেল চোখে গিয়েছে বা শরীরে পরেছে তার উপর।

  • কম-জ্বালাহীন কেমিকেলের জন্য ১০ মিনিট।
  • কেমিকেল যা চোখ এবং চামড়ার জন্য অনেক খতকর তার জন্য ২০-৩০ মিনিট।
  • খুবই মারাত্মক পদার্থের জন্য কমপক্ষে ৩০ মিনিট।
  • সোডিয়াম, ক্যালসিয়াম,ক্যালসিয়াম হাইড্রক্সাইডেড় জন্য ১ ঘন্টা।

তবে এটি হচ্ছে প্রাথমিক চিকিৎসা। বড় ধরণের ঝুঁকি থাকলে অবশ্যই আক্রান্ত ব্যাক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে।

সেফটি শাওয়ার এবং আই ওয়াশের পানির তাপমাত্রা কেমন হওয়া উচিত?

পানি অবশ্যই স্বাভাবিক তাপমাত্রায় থাকা উচিৎ। ১৬-৩০ ডিগ্রী সেলসিয়াস হচ্ছে আর্দশ তাপমাত্রা আর ৩৮ ডিগ্রী সেলসিয়াসের উপর হল ক্ষতিকর। তাই সঠিক তাপমাত্রার পানি ব্যাবহার করা উচিত।

আই-ওয়াশ এবং সেফটি শাওয়ার ভালো আছে কিনা তা কিভাবে পরিক্ষা করব?

UFEW-3-Faucet-for-eyes

  • এটির নজেল বা পানি বের হওয়ার ভাল্বগুলো ১ সেকেন্ডে সচল হওয়া উচিত।
  • পানির উচ্চতা ৬ ইঞ্চি পর্যন্ত উপরে ওঠা উচিত। এমনকি পানি প্রবাহের অবস্থান ক্রোসিং আকারে হওয়া উচিত।
  • নজেল দুইটির পানি প্রবাহের পরিমান একই আছে কিনা তা পরিক্ষা করুণ।
  • এটি সঠিক তাপমাত্রার পানি (১৬-৩০ ডিগ্রী সেলসিয়াস) পানি সরবরাহ করছে কিনা তা পরক্ষা করুন।

আইওয়াসের ব্যবহারের বিবেচ্য বিষয়-

  • কর্মরত সকলকে কিভাবে আই ওয়াশ/সেফটি শাওয়ার ব্যবহার করতে তার উপর প্রশিক্ষণ দিতে হবে।
  • ভাল্ব ব্যবহার করে এর ইউনিটগুলো চালু করতে হবে।
  • চোখের পাতা দুই হাত দিয়ে খোলা রাখতে হবে চোখে পানি দেয়ার সময়।
  • নির্ধারিত সময় (উপরেয় উল্লেখ আছে) পর্যন্ত পানি দিতে হবে।
  • ব্যবহার শেষে সথিকভাবে নজেলগুলো বন্ধ করা নিশ্চিত করতে হবে।

বাংলাদেশে আই-ওয়াশের দাম

এই জাতীয় সরঞ্জামের দাম কার্যকারিতা অনুযায়ী কমবেশি হয়ে থাকে। সাদারণত,আই-ওয়াশের দাম ১০০০০ টাকা থেকে শুরু হয়ে ৩০০০০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। আবার সেফটি শাওয়ারের দাম ২০০০০ থেকে ৪০০০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে। এই দাম বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কারণে পরিবর্তনশীল।

বাংলাদেশের কোথা থেকে আই-ওয়াশ এবং সেফটি শাওয়ার কিনতে পাওয়া যায়?

আমরা (অলেফিন্স ট্রেড কর্পোরেশন)  বাংলাদেশে আই-ওয়াশ এবং সেফটি শাওয়ার (Eyewash and Safety Shower) আমদানি করে থাকি। আমরা ধরণ অনুযায়ী সরাসরি সাপ্লায়ার থেকে পণ্য আমদানি করে থাকি তাই আমরা কম মুল্যে সঠিক পন্যটি দেয়ার নিশ্চয়তা প্রাদান কররে পারি।

olefins- bd- com

আমরা আমাদের আমদানিকৃত আই-ওয়াশ এবং সেফটি শাওয়ার বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রতষ্ঠানে সরবরাহ করেছি এবং করছি। তাই আমাদেরকে আপনার বিশ্বস্ত সরবরাকারী ভাবতে পারেন। আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন এই নম্বরে ০১৭১৯৩০০৯৪০, অথবা চলে আসুন আমাদের অফিসে।

# আইওয়াস এবং সেফটি শাওয়ারের দাম দেখুন